ভয়ঙ্কর তথ্যঃ অনলাইনে নতুন সংযোজন মানব অঙ্গের বেচাকেনা

| - By

ইন্টারনেটে প্রতিনিয়ত যুক্ত হচ্ছে নতুন নতুন এ্যাপস। যে কোন বিষয় নেট ব্যবহারে অল্পতে জানা যাচ্ছে অনেক বিষয়।ইন্টারনেটের সহজলভ্যতা খুলে দিয়ে অনলাইনে কেনাবেচার দুয়ার। কাঁচা সবজি থেকে শুরু করে সবকিছু এখন গ্রাহকের হাতের মুঠোয়। মোবাইলের এক ক্লিকেই ঘরে পৌছে যাচ্ছে সব জিনিস। এবার সেই তালিকায় নতুন সংযোজন মানব অঙ্গের বেচাকেনা। সম্প্রতি অনলাইনে একটি কিডনি কেনা-বেচার বিজ্ঞাপন ঘিরে শোরগোল উঠেছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। ঘটনাটি ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লির।

শহরের একটি নামি প্রাইভেট হাসপাতালের সোশাল সাইটের ব্যানারে জ্বলজ্বল করছে বিজ্ঞাপনটি। রীতিমতো লোভনীয় অফার দেওয়া হয়েছে সেখানে। বলা হয়েছে, জরুরি ভিত্তিতে কিডনির প্রয়োজন। একটি কিডনীর জন্য দাম দেওয়া হয়েছে, এক কোটি ৭৫ লাখ টাকা। এমনকি আগ্রহী দাতার যোগাযোগের জন্য একটি হোয়াটসঅ্যাপ নম্বরও দেওয়া রয়েছে বিজ্ঞাপনটিতে। সোশাল মিডিয়ায় এটি ভাইরাল হতেই টনক নড়ে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের।

তড়িঘড়ি নয়াদিল্লি পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করে কর্তৃপক্ষ। বিজ্ঞাপনের সঙ্গে হাসপাতালের কোনও সম্পর্ক নেই। পরে এই সোশাল মিডিয়ায় এই বিবৃতিও জারি করে কর্তৃপক্ষ। সংস্থার পক্ষ থেকে জানানো হয়, তাদের ওয়েবসাইট হ্যাক করেছে কোনও একটি পাচার চক্র। তারাই এধরনের প্রচার চালাচ্ছে।

প্রসঙ্গত, মানবিক অঙ্গ আইন ১৯৯৪ অনুসারে, ভারতে টাকার বিনিময়ে কিডনির মতো অঙ্গ বিক্রি করা পুরোপুরি নিষিদ্ধ। এই ধরনের প্রলোভন দেখানোও দণ্ডনীয় অপরাধ। ইতিমধ্যেই ঘটনার তদন্তে নেমেছে পুলিশ। এই ধরনের প্রতারণা চক্রের ফাঁদে পা না দেওয়ার জন্য সাধারণ মানুষের কাছে আবেদন জানিয়েছন তাঁরা।




Leave a reply